কিয়েভ থেকে ৯০০-রও বেশি মৃতদেহ উদ্ধার

কিয়েভ থেকে ৯০০-রও বেশি মৃতদেহ উদ্ধার

রাশিয়ান সেনারা চলে যাওয়ার পর ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভ থেকে ৯০০-রও বেশি বেসামরিক ব্যক্তির মৃতদেহ পাওয়া গেছে।

কিয়েভের আঞ্চলিক পুলিশ বাহিনীর প্রধান আন্দ্রিয়ে নেবিতোভ বলেছেন, লাশগুলো রাস্তায় ফেলে রাখা হয়েছে বা অস্থায়ীভাবে দাফন করা হয়েছে। তিনি পুলিশের তথ্য উদ্ধৃত করে বলেছেন যে, হতাহতদের ৯৫ শতাংশ মারা গেছে বন্দুক এবং স্নাইপারের গুলিতে।

নেবিতোভ বলেন, ‘ফলে, আমরা বুঝতে পারছি যে, রাশিয়ার দখলদারিত্বের অধীনে, মানুষকে শুধু শুধু রাস্তায় গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। কিয়েভে নিহত বেসামরিক মানুষের সংখ্যা ৯০০ ছাড়িয়ে গেছে। এবং আমি জোর দিয়ে বলছি, এরা বেসামরিক লোক, যাদের লাশ আমরা খুঁজে পেয়েছি এবং ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য হস্তান্তর করেছি’।

নিবেতভ বলেন, গুলিবিদ্ধ কয়েকজনের গায়ে সাদা বাহুবন্ধনী ছিল। তার মানে, তারা রুশ বাহিনীর হাত থেকে নিজেদের রক্ষা করার চেষ্টা করেছিলেন।

তিনি আরও বলেন, ‘শহরগুলো দখলের সময়, দখলদাররা নাগরিকদের সাদা বাহুবন্ধনী পরতে বাধ্য করেছিল যাতে বুঝা যায় যে, ওই ব্যক্তিকে ইতোমধ্যেই পরীক্ষা করা হয়েছে। গুলি থেকে জীবন বাঁচানোর জন্য আমাদের নাগরিকরা এই ব্যান্ডেজগুলো নিজেরাই পরতেন’।

সাদা বাহুবন্ধনী পরা সবসময় কাজ করতো না জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সাধারণ মানুষ তাদের অ্যাপার্টমেন্টের বাইরে সাদা ন্যাকড়া ঝুলিয়ে রাখতেন। অ্যাপার্টমেন্টে শিশুরাও ছিল’।




আপনার মূল্যবান মতামত দিন:


Top